Some things to do about resume and CV

Some things to do about resume and CV

0

Occasionally I read some articles about Resume and CV in my social media networks.Respecting your writing,This article will make your knowledge a bit richer.Writing from the University of North Carolina, New York University and New Public Library’s Career Development Research.Hope you will be benefited.

At first I talk about two big differences.The first difference between Resume and CV is the length.The second difference is the location.I do not know how to know a little? Let us discuss a little more details.

The first difference is the length.That is, the standard resume length is one page.But in the field it can be from one and a half to two pages.I have never seen the resume of three pages.On the other hand, an ideal CV is two pages.But it can be three to five pages specially.However, in modern times people with many experience are seen to be restricted to 3-4 pages of CV.

The second difference is the location Resume is basically used in America.Resume use in almost 990% of American’s space.I submitted resume with Bio and S for my post graduate admission.That is, resume is also used in the academic field.However,CV is used for academic job and study and some medical jobs.On the other hand, CV is used outside America, In Europe, Africa, Middle East and Asia.In the Asia continent, Resume and CV mixed are used.Employers of these countries hope to have CV from their candidates.Even if i have to apply for jobs or others needs in these countries as an American then i will not be able to send the CV to the resume.

What is have an ideal resume?

An ideal resume should have the following topics :

  • Name and Contact
  • Career Summary (optional)
  • Summary of the life of education
  • History of Job / Professional Experience
  • Skills list
  • Special Achievement or Identity (if any)

What is have an ideal CV?

The following things should be in an ideal CV.

  • Name and Contact information
  • Personal information (optional)
  • Career history
  • Education histroy
  • Publications, Grand fellowships
  • Research and Training
  • Professional Qualifications List
  • All certificates and credentials
  • Awards and Publications
  • Extracurricular Activities
  • Book and Article
  • License and Professional membership
  • Skill list
  • Hobbies and Wishes
  • Reference list (optional)

There is no rule of referencing in references, unless the Employer provides instructions to provide reference.In that case, the reference list should be given in a separate paper.But in the case of CV, European companies,Especially UK companies, still feel the reference to giving references.So you can add a list to the reference in CV.Again, many em-pliers have different references sections in the system, so there is no need to provide references in CV.

How to write a good resume ?

Resume is usually written in three formats.The formats are, chronological, functional, and composite.Of these,the chronological format is very common and the last one is a mixture of the first two.You should fix the format according to your region’s prevalence and the needs of the HR.In the next article, we will write about the details.But to write a successful resume, the demand of the Employer needs to be understood, the content must be understood in priority.The correct templates, fonts, keywords combinations, including grammar and spelling are perfect. Your resume is written for both man and robot.That means if your employer uses an instrument for the selection of resume, then your resume may not be missed.Sort the series of items that you need to resume.Give your achievements bullet  form below the position. It is better to achieve 2-3 postilions in each position.After the end of the post, show friends or career professional.

How to write a good CV ?

Select the correct format for writing CV. Formatting usually depends on the purpose and location of your CV type.For example, you do not have to write CV for jobs, write Fellowship CV, and for European jobs or for Africa’s jobs, type of issue are involved.Some CV have to provide personal information and some do not have to be CV.You can use the Times New Roman, Calibrate,Arial as the font in CV.Keep the font size between 10 to 12.Sort things that need to be in CV sequentially.Give your achievements bullet form below the position.It is best if you earn 2-3 in each position / Fellowship.After the end of the post, show friends career professional.

Will not write the purpose, write profession short ?

See, the real purpose of writing each resume is to get a job.It is not for anyone who has resumed writing just for an interview.That is, our real purpose is that of the job.I’m happy if someone does not work for me without interviewing me, is not it ? So Employers are more important than what your career aims or what you want to do, how well you are for the current position.For this, modern career experts are asking for the profession to write briefly without intentions. There are rules for writing profession briefly.Firs, write a title depending on what you are applying for and what position you are applying for.Take for example, A sales specialist may be entitled to the title of Sales Specialist / Inside Sales Specialist / Outside Sales Specialist.Select the title that applies to you.Now, what is the position you are applying for under the title and why you are applying for that position, why do you put strong candidates in 4-5 sentences.This will be your resume career summary.

Which is perfect Resume or CV ?

If you apply for a job in an American company, you must send resumes. See the instructions in all other cases.If they send resume to send resume, send CV if you want to send CV. My advice is, create your resume and CV or bio keep your hand. Use it when you need it.Best wishes for everyone.

Please comment, if you want to know your opinion.Because the next post topics are selected depending on your comment.

Become an “IT writer” you can “Guest post” to this site


রেজুমি ও সিভির পার্থক্য নিয়ে কিছু কথা ও করণীয়

রেজুমি ও সিভি নিয়ে মাঝে মাঝে কিছু লেখা আমার স্যোশাল মিডিয়ার ফিডে দেখি। আপনাদের লেখার প্রতি সম্মান জানিয়ে বলছি, এই লেখাটা আপনাদের জানাকে আরেকটু সমৃদ্ধ করবে বলে বিশ্বাস করি। লেখাগুলো ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ক্যারোলিনা, নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটি ও নিউইয়র্ক পাবলিক লাইব্রেরির ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট গবেষণা থেকে নেওয়া। আশা রাখি আপনাদের উপকারে আসবে।

প্রথমে সংক্ষেপে দুটো বড় পার্থক্যের কথা বলি। রেজুমি ও সিভির মধ্যে প্রথম পার্থক্যটি হলো দৈর্ঘ্য। দ্বিতীয় পার্থক্যটি হলো স্থান। একটু কেমন জানি মনে হলো তাই না? আসুন, এবার একটু বিস্তারিত আলোচনা করি।
প্রথম পার্থক্য হলো দৈর্ঘ্য। অর্থাৎ আদর্শ রেজুমির দৈর্ঘ্য এক পাতা হয়। কিন্তু ক্ষেত্র বিশেষ এটা দেড় থেকে দুই পাতা হতে পারে। আমি তিন পাতার রেজুমি কখনো দেখিনি। অন্য দিকে একটি আদর্শ সিভি দুই পাতার হয়। তবে ব্যক্তি বিশেষ তা তিন থেকে পাঁচ পাতা পর্যন্তও হতে পারে। তবে আধুনিক সময়ে অনেক অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যক্তিদের সিভিও ৩–৪ পাতার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে দেখা যায়।
দ্বিতীয় পার্থক্যটি হলো স্থান। রেজুমি মূলত আমেরিকাতে ব্যবহার হয়। আমেরিকার প্রায় ৯৯ ভাগ জায়গাতেই রেজুমির ব্যবহার। আমি আমার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ভর্তির জন্যও বায়ো ও এসের সঙ্গে রেজুমি জমা দিয়েছি। অর্থাৎ একাডেমিক ক্ষেত্রেও রেজুমির ব্যবহার হয়। তবে একাডেমিক জব ও গবেষণায় অধ্যয়নের জন্য এবং কিছু কিছু চিকিৎসা জবের ক্ষেত্রে সিভি ব্যবহার করা হয়।
অন্য দিকে সিভির ব্যবহার হয় আমেরিকার বাইরে অর্থাৎ ইউরোপ, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য ও এশিয়াতে। এশিয়া মহাদেশে রেজুমি ও সিভির মিশ্র ব্যবহার রয়েছে। এসব দেশের চাকরিদাতা তাদের প্রার্থীদের কাছ থেকে সিভি আশা করে। এমনকি একজন আমেরিকান হিসেবে আমাকেও যদি এই সব দেশে চাকরি বা অন্যান্য প্রয়োজনে আবেদন করতে হয় তবে সিভি পাঠাতে হবে রেজুমি নয়।

একটি আদর্শ রেজুমিতে কী কী থাকে

একটি আদর্শ রেজুমিতে নিচের বিষয়গুলো থাকা উচিত।

  • নাম ও যোগাযোগ।
  • কর্মজীবনের সারাংশ (অপশনাল)।
  • শিক্ষা জীবনের সারাংশ।
  • কাজের/অভিজ্ঞতার ইতিহাস।
  • দক্ষতার তালিকা।
  • বিশেষ কোনো অর্জন বা পরিচয় (যদি থাকে)।

একটি আদর্শ সিভিতে কী কী থাকে

একটি আদর্শ সিভিতে নিচের বিষয়গুলো থাকা উচিত।

  • নাম ও যোগাযোগের তথ্য।
  • ব্যক্তিগত তথ্য (অপশনাল)।
  • কর্মজীবনের ইতিহাস।
  • শিক্ষার ইতিহাস।
  • পাবলিকেশন, গ্র্যান্ড, ফেলোশিপ।
  • গবেষণা ও ট্রেনিং।
  • পেশাগত যোগ্যতার তালিকা।
  • সকল সার্টিফিকেট এবং স্বীকৃতি।
  • অ্যাওয়ার্ড ও পাবলিকেশনের তালিকা।
  • পাঠক্রম বহির্ভূত কার্যক্রম।
  • বুক ও আর্টিকেল।
  • লাইসেন্স ও পেশাগত সদস্যপদ।
  • দক্ষতার তালিকা।
  • শখ ও ইচ্ছা।
  • রেফারেন্স তালিকা (অপশনাল)।

রেফারেন্সের ক্ষেত্রে রেজুমিতে রেফারেন্স দেওয়ার নিয়ম নেই যদি না এমপ্লয়ার আগে থেকে নির্দেশনা দিয়ে থাকে রেফারেন্স প্রদানের জন্য। সে ক্ষেত্রে একটি ভিন্ন কাগজে রেফারেন্স তালিকা দিতে হবে। কিন্তু সিভির ক্ষেত্রে এখনো ইউরোপিয়ান বিশেষত ইউকের প্রতিষ্ঠানগুলো রেফারেন্স দেওয়াকে আদর্শ মনে করে। তাই সিভিতে রেফারেন্সে তালিকা যোগ করতে পারেন। আবার অনেক এমপ্লয়ারের অ্যাপ্লিকেশন সিস্টেমে ভিন্ন ভাবে রেফারেন্স সেকশন আছে, সে ক্ষেত্রে সিভিতেও রেফারেন্স দেওয়ার প্রয়োজন নেই।

কীভাবে একটি উত্তম রেজুমি লিখব?

রেজুমি সাধারণত তিনটি ফরম্যাটে লেখা হয়। ফরম্যাটগুলো হলো, কালানুক্রমিক, কার্যকরী ও সংমিশ্রণ। এর মধ্যে কালানুক্রমিক ফরম্যাটটি বহুল প্রচলিত এবং শেষটি হলো প্রথম দুটোর মিশ্রণ। আপনি আপনার অঞ্চলের প্রচলন ও এইচআরের চাহিদা অনুযায়ী ফরম্যাট ঠিক করবেন। পরবর্তী লেখায় এ সম্পর্কে বিস্তারিত লিখব। তবে একটি সফল রেজুমি লিখতে হলে এমপ্লয়ারের চাহিদা বুঝতে হবে, বিষয়বস্তু অগ্রাধিকার বুঝতে হবে। সঠিক টেমপ্লেট, ফন্ট, কিওয়ার্ড সমন্বয় করাসহ গ্রামার ও বানান নির্ভুল করতে হবে। আপনার রেজুমিটি যেন মানুষ ও রোবট উভয়ের জন্য লেখা হয়। অর্থাৎ এমপ্লয়ার যদি রেজুমি বাছাইয়ের জন্য যন্ত্র ব্যবহার করে এতেও যেন আপনার রেজুমি বাদ না পড়ে। রেজুমিতে যেসব বিষয়গুলো থাকা দরকার সেগুলো ক্রমানুসারে সাজান। আপনার অর্জনগুলো পজিশনের নিচে বুলেট আকারে দিন। প্রতিটি পজিশনে ২–৩টি অর্জন দিলে ভালো হয়। লেখা শেষ হলে বন্ধুবান্ধব বা ক্যারিয়ার প্রোফেশনাল দিয়ে দেখিয়ে নিন।

কীভাবে একটি উত্তম সিভি লিখব?

সিভি লেখার জন্য সঠিক ফরম্যাট নির্বাচন করুন। ফরম্যাট সাধারণত আপনার সিভি লেখার উদ্দেশ্য ও স্থানের ওপর নির্ভর করে। যেমন ধরুন আপনি চাকরির জন্য সিভি লিখবেন না ফেলোশিপের সিভি লিখবেন আবার ইউরোপের জবের জন্য নাকি আফ্রিকার জবের জন্যই ধরনের বিষয়গুলো জড়িত। কিছু কিছু সিভিতে ব্যক্তিগত তথ্য প্রদান করতে হয় আবার কিছু সিভিতে করতে হয় না। সিভিতে ফন্ট হিসেবে টাইমস নিউ রোমান, কালিব্রি, আরিয়াল ব্যবহার করতে পারেন। ফন্ট সাইজ ১০ থেকে ১২–এর মধ্যে রাখুন। সিভিতে যেসব বিষয়গুলো থাকা দরকার সেগুলো ক্রমানুসারে সাজান। আপনার অর্জনগুলো পজিশনের নিচে বুলেট আকারে দিন। প্রতিটি পজিশনে/ফেলোশিপে ২–৩টি অর্জন দিলে ভালো হয়। লেখা শেষ হলে বন্ধুবান্ধব বা ক্যারিয়ার প্রোফেশনাল দিয়ে দেখিয়ে নিন।

উদ্দেশ্য লিখব না পেশা সংক্ষেপ লিখব?

দেখুন, প্রতিটি রেজুমি লেখার আসল উদ্দেশ্য হলো চাকরি পাওয়া। এমনটি নয় যে কেউ রেজুমি লিখে শুধু মাত্র ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য। অর্থাৎ আমাদের আসল উদ্দেশ্য হলো চাকরি। কেউ যদি আমার রেজুমি না নিয়ে, ইন্টারভিউ না নিয়ে চাকরি দেয় তাতেও আমি খুশি, তাই না? সুতরাং এমপ্লয়ারদের কাছে আপনার ক্যারিয়ার উদ্দেশ্য কি বা কি করতে চান তার চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো বর্তমান পজিশনের জন্য আপনি কতটা উপযুক্ত। এ জন্য আধুনিক ক্যারিয়ার এক্সপার্টেরা উদ্দেশ্য না লিখে পেশা সংক্ষেপ লিখতে বলে। পেশা সংক্ষেপ লেখার নিয়ম আছে। প্রথমে আপনি কি এবং কোন পজিশনের জন্য আবেদন করছেন তার ওপর নির্ভর করে একটি টাইটেল লিখুন। যেমন ধরুন; একজন সেলস স্পেশালিস্টের টাইটেল হতে পারে বিটুবি সেলস স্পেশালিস্ট/ইনসাইড সেলস স্পেশালিস্ট/আউট সাইড সেলস স্পেশালিস্ট ইত্যাদি। আপনার জন্য যে টাইটেল প্রযোজ্য সেটি নির্বাচন করুন। এবার সে টাইটেলের নিচে আপনি কি এবং যে পজিশনের জন্য আবেদন করছেন সে পদে আপনি কেন শক্ত ক্যান্ডিডেট তা ৪–৫টি বাক্যের মধ্যে লিখুন। এটা হবে আপনার রেজুমির পেশার সারসংক্ষেপ।

রেজুমি না সিভি দেব?

আপনি যদি আমেরিকার কোনো প্রতিষ্ঠানে চাকরির জন্য আবেদন করেন তবে অবশ্যই রেজুমি পাঠান। বাকি সব ক্ষেত্রে নির্দেশনা দেখুন। যদি তারা রেজুমি পাঠাতে বলে রেজুমি পাঠান, যদি সিভি পাঠাতে বলে তাহলে সিভি পাঠান। আমার উপদেশ হলো, আপনার রেজুমি, সিভি ও বায়ো তৈরি করে হাতের কাছে রাখুন। যখন যেটার প্রয়োজন পরে সেটা ব্যবহার করুন। সবার জন্য শুভ কামনা।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY